বুধবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

স্বরূপে বাংলাদেশ

news-image

মিরপুরে দক্ষিণ আফ্রিকাকে চেপে ধরেছে টাইগাররা। ১০০ রানের আগেই তাদের প্রথম সারির ছয় জন ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়েছে মাশরাফি বাহিনী। টাইগার বোলারদের বিরুদ্ধে একাই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন ডু প্লেসিস। ধীরে ধীরে বড় সংগ্রহের দিকেই এগুচ্ছিলেন তিনি। তবে অলরাউন্ডর নাসির তাকে টেনে ধরলেন। হাফ সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৯ রান দূরে থাকা ডু প্লেসিসকে সাজঘরে ফেরালেন নাসির। নাসিরের আগে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান ডেভিড মিলারকে ‘কিলার’ হয়ে ওঠার আগেই থামান বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ‘নায়ক’ মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ৩০ ওভার শেষে সফরকারীদের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৯৫ রান। ডুমিনি ৫ রানে ক্রিজে আছেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংসে উল্লেখযোগ্য ডু প্লেসিস ৪১ ও অধিনায়ক হাশিম আমলা ২২ রান করেছেন।

বাংলাদেশের পক্ষে নাসির ২টি এবং মুস্তাফিজ, রুবেল ও রিয়াদ একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

রোববার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রোটিয়া অধিনায়ক হাশিম আমলা ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

ইনিংসের পঞ্চম ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন ভারত-বধের নায়ক মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজের বাউন্সার বল ঠিকভাবে খেলতে না পেরে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে সাব্বির রহমানকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন কুইন্টন ডি কক। ৯ বলে ২ রান করেন এই ওপেনার।

শুরুতেই ডি ককের বিদায়ের পর প্রতিরোধ গড়ে তোলেন হাশিম আমলা ও ফাফ ডু প্লেসিস। তবে ইনিংসের ১৩তম ও নিজের দ্বিতীয় ওভারে আমলাকে ফিরিয়ে প্রতিরোধ ভাঙেন রুবেল হোসেন। দারুণ এক ডেলিভারিতে আমলার স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলেন আজই একাদশে সুযোগ পাওয়া রুবেল। ৩৭ বলে ২২ রান করেন আমলা। আমলা-প্লেসিস দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আসে ২৯ রান।

প্রথম ওয়ানডেতে ৮ উইকেটে হেরে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। এ ম্যাচে হেরে গেলে টানা তিন সিরিজ পর ওয়ানডে সিরিজ হারবে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তন আনা হয়েছে। লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেনের পরিবর্তে একাদশে সুযোগ পেয়েছেন পেসার রুবেল হোসেন। দক্ষিণ আফ্রিকা দলে কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি।

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দারুণ এক মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি আছে সাকিব আল হাসান ও মাশরাফি বিন মুর্তজার সামনে। দুজনেই শুরু করেছেন ১৯৮টি উইকেট নিয়ে। দুইটি উইকেট নিয়ে দুজনেই স্পর্শ করে ফেলতে পারেন ২০০ উইকেটের মাইলফলক।

বাংলাদেশ একাদশ : মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, নাসির হোসেন, লিটন দাস, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, রুবেল হোসেন ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

দক্ষিণ আফ্রিকা একাদশ : হাশিম আমলা (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক, ফাফ ডু প্লেসিস, রিলে রুশো, জেপি ডুমিনি, ডেভিড মিলার, ফারহান বেহারডিন, কাগিসো রাবাদা, ইমরান তাহির, কাইল অ্যাবোট ও ক্রিস মরিস।