বুধবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এবার নিউ ইয়র্কে এবোলায় আক্রান্ত চিকিৎসক

news-image

47115_nyমেডিকেল প্রতিবেদক : যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের চিকিৎসক ক্রেইগ স্পেন্সার (৩৩) এবার এবোলায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি ম্যানহাটনের হারলেম এলাকার বাসিন্দা। যুক্তরাষ্ট্রে চতুর্থ এবং নিউ ইয়র্কের প্রথম ব্যক্তি হিসেবে এবোলায় আক্রান্ত হলেন ক্রেইগ।

সম্প্রতি তিনি পশ্চিম আফ্রিকার এবোলা আক্রান্ত দেশ গিনি থেকে নিউ ইয়র্কে ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন। দাতব্য সংস্থা মেডেসিন্স স্যান্স ফ্রন্টিয়ার্সের (এমএসএফ) সঙ্গে গিনিতে এবোলা অক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার সময় ভাইরাসে আক্রান্ত হন তিনি। গত বৃহস্পতিবার জ্বর নিয়ে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন ক্রেইগ এবং স্বাস্থ্য-পরীক্ষায় তার দেহে এবোলা ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়।

নিউ ইয়র্কের বেলেভ্যিউ হাসপাতালে পৃথক ব্যবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। নিউ ইয়র্ক সিটির মেয়র বিল দে ব্লাসিও এ তথ্য দিয়েছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি ও আল-জাজিরা। এক বিবৃতিতে মেয়র ব্লাসিও বলেছেন, নিউ ইয়র্কবাসীদের আতঙ্কিত হওয়ার কোন কারণ নেই। নিউ ইয়র্কের যে অধিবাসীরা এবোলায় আক্রান্ত কোন ব্যক্তির শরীর থেকে নির্গত ফ্লুইডের সংস্পর্শে যাননি, তাদের এবোলায় সংক্রমিত হওয়ার কোন ঝুঁকি নেই।

স্পেন্সার গত ১৪ই অক্টোবর গিনি ছাড়েন এবং ইউরোপ হয়ে গত ১৭ই অক্টোবর নিউ ইয়র্কে ফিরে যান। গত মঙ্গলবার তিনি ক্লান্তি ও অবসাদ অনুভব করেন এবং গতকাল জ্বর ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হন। দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তিনি এবং তাকে নিউ ইয়র্কের বেলেভ্যিউ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে বিশেষ ব্যবস্থায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এদিকে গত বৃহস্পতিবার পশ্চিম আফ্রিকার ষষ্ঠ দেশ হিসেবে মালিতে এবোলায় আক্রান্ত হয়েছে ২ বছরের একটি শিশু।

শিশুটি গিনি থেকে ফেরার পর এবোলায় সংক্রমিত হয়। গিনিতে কয়েক সপ্তাহ আগে শিশুটির মায়ের মৃত্যু হয়। এরপর আত্মীয়-স্বজনরা মালিতে শিশুটিকে নিয়ে যান। সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এ পর্যন্ত এবোলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৯৩৬ জন এবং প্রাণ হারিয়েছেন ৪ হাজার ৮৭৭ জন। পশ্চিম আফ্রিকার দেশ লাইবেরিয়া, গিনি ও সিয়েরা লিওন এবোলার সংক্রমণে সবচেয়ে বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।