বৃহস্পতিবার, ২৯শে মার্চ, ২০১৮ ইং ১৫ই চৈত্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ওয়ালটন স্মার্ট প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ মাহমুদউল্লাহ

mahmoওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশের মধ্যকার ক্রিকেট সিরিজ-২০১৪-এর কো-স্পন্সর দেশীয় স্বনামধন্য ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস, অটোমোবাইল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রস্তুতকারী ব্র্যান্ড ওয়ালটন।

এই সিরিজের ছয়টি ম্যাচের (৩টি ওয়ানডে, ২টি  টেস্ট ও ১টি টি-টোয়েন্টি) সেরা খেলোয়াড়কে নির্বাচিত করা হয়েছে ‘ওয়ালটন স্মার্ট প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ’ হিসেবে। পুরস্কার হিসেবে নির্বাচিত খেলোয়াড় ওয়ালটনের পক্ষ থেকে পাচ্ছেন একটি স্মার্টফোন ও ৩০০ ডলার।
 
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ টেস্টে ৫৩ রান ও ৩ উইকেট নিয়ে ‘ওয়ালটন স্মার্ট প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ’ নির্বাচিত হন বাংলাদেশ দলের মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।
 
প্রায় দুই বছর ধরে টেস্টে খারাপ সময় যাচ্ছিল মাহমুদউল্লাহর। ২০১২ সালের নভেম্বরে খুলনা টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ৭৬ রান করেছিলেন। এরপর ফিফটি নেই আট ইনিংসে। গত ফেব্রুয়ারিতে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সর্বোচ্চ ইনিংস, ৩০ রানের।
 
দীর্ঘ বিরতির পর রান খরা কাটে সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। সিরিজের শেষ টেস্টে তামিম ইকবাল ৪৮ রানে বিদায় নিলে বাকিরাও তার পথ অনুসরণ করতে শুরু করে। ব্যতিক্রম মাহমুদউল্লাহ। ১০০ বলে ৫৩ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন তিনি। সুলাইমান বেনের বলে উইকেটরক্ষক রামদিনের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেছেন মাহমুদউল্লাহ।
 
শফিউলের সঙ্গে তার ৮ম উইকেট তোলা ৪৫ রানই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জুটি। তবে তার এই লড়াইটা প্রয়োজনের তুলনায় ছিল সামান্য। কেননা বাংলাদেশ ফলোঅনের লজ্জা এড়াতে পারেনি। সর্ব সাকুল্যে ১৬১ রানেই গুটিয়ে যায় তাদের ইনিংস। যেখানে তাদের করতে হতো ১৮০ রান। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে মাহমুদউল্লাহ ব্যাটিংয়ে হতাশ করেছেন। রানের খাতাই খুলতে পারেননি তিনি। বাংলাদেশ হেরে যায় ২৯৬ রানে।
 
এ ছাড়া মাহমুদউল্লাহ বোলিংয়েও বেশ ভালো করেছেন। দুই ইনিংস মিলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩টি উইকেট শিকার করেছেন। বাংলাদেশের পক্ষে সেরা পারফরমার তিনিই। এর সুবাদে মাহমুদউল্লাহর হাতেই উঠেছে ওয়ালটন স্মার্ট প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার।

 

Print Friendly, PDF & Email